Paid-by-bdcricinfo

তামিম ইকবালের জীবন বৃত্তান্ত

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন




তামিম ইকবালের ব্যক্তিগত জীবনঃ

  • নামঃ তামিম ইকবাল খান
  • ডাকনামঃ তামিম 
  • জন্মঃ ২০ মার্চ ১৯৮৯ চট্টগ্রাম, বাংলাদেশ
  • উচ্চতাঃ ৫ ফুট ৯ ইঞ্চি/১.৭৫ মিটার
  • ব্যাটিংয়ের ধরনঃ বা হাতি
  • ভূমিকা উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান

তামিম ইকবাল তার পুরো নাম তামিম ইকবাল খান। তামিম ২০ মার্চ ১৯৮৯ সালে চট্টগ্রামের কাজীর দেওরিতে বিখ্যাত খান পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।বতর্মানে তামিম ইকবাল ঢাকায় বসবাস করেন। তিনি তার নিজ গ্রামের সানশাইন স্কুল থেকে ও লেভেল এবং এ লেভেলে পড়াশোনা করেন।  তামিনের বাবার নাম ইকবাল খান ও মায়ের নাম নুসরাত ইকবাল।  তামিমের বাবা ছিলো ক্রিকেটার ও একজন ফুটবলার। তামিমের বাবা ২০০০ সালে ইন্তেকাল করেন।  তামিমের একটা বড় ভাই আছে তিনিও ক্রিকেটার নাফিস ইকবাল। দুই ভাই এর মাঝে আবার একটা ছোট্ট বোনও আছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) পরিচালক ও সাবেক অধিনায়ক আকরাম খান তামিম ইকবালের আপন চাচা। 

বাংলাদেশ দলে তামিম ইকবালের ভূমিকাঃ

উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান বলা হয় তামিম ইকবালকে। তিনি তিন ফরমেটেই ক্রিকেট খেলে থাকেন। তিনি তিন ফরমেটে ওপেনিং ব্যাটিংয়ে মাঠে নামে । তিনি বাংলাদেশ  জন্য একজন অন্যতম ক্রিকেট অনুপ্রেরণা। তামিম ইকবাল বাংলাদেশের ক্রিকেটের সেরা ব্যাটসম্যান দের মধ্যে একজন‌। বাংলাদেশের সব ফরমেটে সেরা রানের তালিকায় নিজের নাম লেখায়। টেস্টে নিজের রানের উপরে বর করে প্রথম জয়ী হয়। 

 
তামিমের টেস্ট অভিষেক কবে হয়ঃ

তামিম ইকবালের টেস্ট অভিষেক হয় (৪ জানুয়ারি ২০০৮ সালে) নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেএর এক বছর পরে ২০০৯ সালে জুলাই-আগস্ট মাসে বাংলাদেশের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে তামিম ইকবাল তার প্রথম টেস্ট শতক করেন। তামিমের ব্যাটিংয় বাংলাদেশকে এক ঐতিহাসিক বিজয় এনে দেয়। এটি ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট বিজয় এবং দেশের বাইরের মাটিতে প্রথম টেস্ট জয়। তামিম ইকবাল তার প্রথম টেস্ট শতক করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এর বিপক্ষে সেই ম্যাচে তাঁর রান ছিল (১২৮) এরপর “ভারতের বিপক্ষে (১৫১) ইংল্যান্ড বিপক্ষে (১০৩) আবার (১০৮) জিম্বাবুয়ে বিপক্ষে (১০৯) আবার (১০৯) পাকিস্তানের বিপক্ষে (২০৬) ইংল্যান্ড এর বিপক্ষে (১০৪„ করেন এই বা হাতি ব্যাটার। পাকিস্তানের বিপক্ষে সেই খুলনা টেস্টটা আলাদাভাবে দাগ কেটেছে তামিম টেস্ট ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ (২০৬) স্কোর গড়েছিলেন ওই টেস্টেই। তামিম তার প্রথম ডাবল শতক করে পাকিস্তানের বিপক্ষে। 


তামিমের ওয়ানডে অভিষেক কবে হয়ঃ

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তামিম ইকবালের অভিষেক হয়েছে আজ থেকে ১৪ বছর আগে। তামিম ইকবালের ওডিয়াই অভিষেক ঘটে জিম্বাবুয়ে বিপক্ষে (৯ ফেব্রুয়ারি ২০০৭ সালে)। তামিম ইকবাল ওয়ানডে  ফরম্যাটে সবচেয়ে বেশি সফল (১৩ সেঞ্চুরি) আছে এই বাহাতি খেলোয়াড়ের। এই ফরম্যাটে ঘরের মাঠে নেই কোনো সেঞ্চুরি। ১৪ বছরের ক্যারিয়ারে সফরে বাহির মাটিতে সর্বোচ্চ খেলেছেন ৯৫ রানের ইনিংস। সেটাও ২০১০ সালের কথা। সফরকারি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৯৬ বলে এই সংগ্রহ পেয়েছিলেন স্বাগতিক এই ব্যাটসম্যান। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৮২ রান করেছিলেন ২০০৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে। (২৬ জুলাই ২০১৯ সালে) শ্রিলঙ্কার ম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ক্রিকেটে অধিনায়ক হিসেবে অভিষেক হয় ওপেনার তামিম ইকবালের। তামিম ইকবালের ক্যারিয়ারে আন্তর্জাতিক প্রথম শতক আসে “আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে (১২৯), জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে (১৫৪), ইংল্যান্ডের বিপক্ষে (১২৫), শ্রিলঙ্কার বিপক্ষে (১১২), পাকিস্তানের বিপক্ষে (১৩২) আবার (১১৬*), আফগানিস্তানের বিপক্ষে (১০৮) রান করেন তিনি। তামিম ইকবাল বাংলাদেশের ওডিয়াই টপ পাঁচের বিতর আছে।


তামিম ইকবালের টি২০ অভিষেক কবে হয়ঃ

তামিম ইকবাল বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি ওপেনার ব্যাটসম্যান্ট। তামিম ইকবালের টি টোয়েন্টিতে অভিষেক হয় (১ সেপ্টেম্বর ২০০৭ সালে) কেনিয়ার বিপক্ষে। তামিম ইকবাল প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে ( ১০০০ ) রানের মাইলফলক অতিক্রম করেন। সব ফরম্যাটের ক্রিকেটেই তামিম ইকবাল বাংলাদেশের সেরা রান সংগ্রাহক। (১৭৫৮) আন্তর্জাতিক টি টোয়েন্টি রান আছে তামিম ইকবালের ব্যাটে। এক যুগের বেশি সময় ধরে বাংলাদেশের ওপেনিং স্লটে তামিম ইকবাল একদম পাকাপাকি নাম। তামিম ইকবালকে এক নম্বরে রেখে খোঁজা হয় অন্য ওপেনার। বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি খেলেছে ১০২টি। এরমধ্যে ৭৮টি ম্যাচেই ছিলেন তামিম। এই ৭৮ ম্যাচে তার রান বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি ১৭৫৮, গড়- ২৪.০৮ কিন্তু টি-টোয়েন্টিতে যেটা সবচেয়ে জরুরী সেই স্ট্রাইকরেট মাত্র - ১১৬.৯৬। বাংলাদেশের ওপেনার তামিম ইকবাল ২০১৬ সালের ১৩ মার্চ টি২০ বিশ্বকাপে ওমানের বিপক্ষে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে সেঞ্চুরি করেন ৷

কোন কোন লিগে তামিম ইকবাল খেলেছেঃ

  1. চট্টগ্রাম -২০০৭
  2. নটিংহ্যামশায়ার-২০১১
  3. চিটাগাং কিংস-২০১২
  4. দুর্দান্ত রাদশাহী-২০১৩
  5. ওয়েম্বা ইউনাইটেড-২০১২
  6. ওয়েলিংটন-২০১২/২০১৩
  7. পুনে ওয়ারিয়র্স ইন্ডিয়া-২০১২/২০১৩
  8. সেন্ট লুসিয়া জুকস-২০১৩
  9. চিটাগাং ভাইকিংস-২০১৫/২০১৬
  10. পেশোয়ার জালমি-২০১৬
  11. এসেক্স-২০১৭
  12. স্পিন গর টাইগার্স-২০১৭
  13. কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স-২০১৭-২০১৯
  14. নঙ্গরহার লিওপার্ডস-২০১৮
  15. ঢাকা প্লাটুন-২০১৯
  16. ইপিএল-২০২১

বর্তমানে তামিম ইকবাল নেপালের ঘরোয়া এভারেস্ট প্রিমিয়ার লিগ (ইপিএল) খেলতে যায়।

তামিম ইকবাল ২০১১ সালে উইজেন ক্রিকেটার্স অ্যালামন্যাক এ বর্ষসেরা ৪ ক্রিকেটারের মধ্যে অন্যতম ও ২য় বাংলাদেশী হিসেবে উইজডেন এ বর্ষসেরা টেস্ট ক্রিকেটার নির্বাচিত হন। রানাসিংহে প্রেমাদাসা স্টেডিয়াম সনাথ জয়াসুরিয়ার করা ২৫১৪ রানের রেকর্ড ভেঙে একই ভেন্যুতে সর্বোচ্চ রানের অধিকারী হিসেবে নিজের নাম লেখান।


Related Posts

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন